by Mark Anupom Mollick

মাস দুয়েক আগে, করোনাভাইরাস তখনো সারা বিশ্বে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েনি, বিখ্যাত ব্রিটিশ নিউজপেপার ‘The Guardian’ এর একটি আর্টিকেল পড়েছিলাম। সেখানে প্রেডিক্ট করা হয়েছিল - করোনাভাইরাস ক্রাইসিস যদি pandemic এ রূপ নেয়, তাহলে গ্লোবাল বিজনেস এবং ইকোনমি One Trillion Dollars এর উপর লস খাবে।

মাত্র দুইমাসে, পুরো বিশ্বটার চেহারাই বদলে গেছে। লাখ লাখ বিজনেস বন্ধ হবার উপক্রম অলরেডি, আর আসলেই কত ট্রিলিয়ন ডলারের ধাক্কা খেতে যাচ্ছে সেটা এখনো প্রেডিক্ট করাটাই অসম্ভব হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

সেইম চিত্র আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিতে বাংলাদেশেও। স্টার্ট-আপ থেকে শুরু করে MNC; গার্মেন্টস, ট্রাভেল, এডুকেশন, টেক, এগ্রিকালচার, হেলথ, ফুড, এন্টারটেইনমেন্ট, মিডিয়া, ম্যানুফ্যাকচারিং - প্রতিটা সেক্টরের অধিকাংশ বিজনেস অলরেডি কঠিন অন্ধকার দেখছে সামনে।

কিন্তু আমরা মানব জাতি, এত সহজে একটা ভাইরাসের কাছে হার মেনে নেবার পাত্র আমরা নই। আপনার বিজনেস - আপনার স্বপ্ন, আপনার জীবিকা। নিজের সামর্থ্যের শেষ বিন্দুটুকু দিয়ে আপনি চেষ্টা করছেন তাকে রক্ষা করার জন্য।

এই পোস্টে আমি 5 টি ইফেক্টিভ বিজনেস স্ট্রাটেজি নিয়ে ডিসকাস করবো, যেগুলো এই ক্রাইসিস মোমেন্টে বিশ্বের নামকরা স্টার্টআপ থেকে শুরু করে বিলিয়ন ডলারের এস্টাবলিশড conglomerate গুলোও ইমপ্লিমেন্ট করছে।

But remember - This is an unprecedented time for all of us.

এই স্ট্রাটেজির থেকে কোন একটি, বা সবগুলোই আপনার বিজনেসে এই বিপর্যয়ের সময়ে সার্ভাইব করতে সাহায্য করতে পারে, আবার কোনটা আপনার জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে। সেক্ষেত্রে স্ট্রাটেজিগুলো আপনাকে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী মডিফাই করে নিতে হবে।

আর হ্যা, আপনি যেন এই 5 টি টপ বিজনেস স্ট্রাটেজি খুব সহজে এবং ইফেক্টিভলি ব্যবহার করতে পারেন সেজন্য আমি একটি FREE Execution Plan পিডিএফ তৈরী করছি। কারণ স্ট্রাটেজি তৈরি করার পর সেটা সঠিক ভাবে execute করাটা অনেক সময়ই চ্যালেঞ্জিং হয়। প্ল্যান্টটি এখানে ক্লিক করে Download করে নিতে পারেন।

১। Discount এবং FREE অফারঃ

অনেকের কাছে এই স্ট্রাটেজিটা অবশ্যম্ভাবী মনে হতে পারে, আবার অনেকের কাছে counter-intuitive মনে হতে পারে।

সোশ্যাল ডিসটান্সিং শুরু হবার পর থেকে, যে কোম্পানিটা আমাদের সবার কাছে househole name হয়ে দাঁড়িয়েছে, সেটি হচ্ছে Zoom!

আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে, Zoom কিন্তু মেইনলি প্রফেশনাল ইউজের জন্যই ডিজাইন করা, বাট নিজেদের সার্ভিস সবার কাছে এই প্রয়োজনের সময় উন্মুক্ত করে দিয়ে তারা ওয়ান অফ দ্যা টপ গ্রোথ অর্জন করেছে এই খরার মৌসুমে।

কমিউনিকেশন ট্যুল লাইক Microrosft Team, Google Hangout বা Zoom এদের কথা বাদ দিলাম, এই ইন্ড্রাস্টি গুলো এখন ভাল করার সুযোগ সেটা স্বাভাবিক। কিন্তু এর বাইরে আরেকটা ইন্ডাস্ট্রি যেটি ফ্রি এবং ডিসকাউন্ট অফার দিয়ে সফলতা পাচ্ছে সেটি হচ্ছে Online Training.

DigitalMarketer, আমার অত্যন্ত পছন্দের একটি কোম্পানি যারা বিশ্বের অন্যতম সেরা মার্কেটিং স্ট্রাটেজি ট্রেইনিং প্রোভাইড করে, এক মাসের জন্য তাদের প্রিমিয়াম ৪৯৫ ডলারের কোর্স এবং সাবস্ক্রিপশন ফ্রী করে দিয়েছিল। LinkedIn, Udemy এরাও কিন্তু সিমিলার অফার দিয়ে যাচ্ছে রেগুলারলি। আর একইভাবে আমাদের লোকাল EduTech স্টার্ট-আপ bohubrihi তাদের সবচেয়ে চাহিদাসম্পন্ন কিছু কোর্স কমপ্লিটলি ফ্রি করে দিয়েছে, সাথে স্পেশাল ডিসকাউন্ট ও ছিল কিছুদিন।

এইসব ফ্রি অফার, সাবস্ক্রিপশন এর ফলে কোম্পানিগুলো ইমিডিয়েটলি প্রফিট মেইক না করলেও হাজার হাজার একদম নতুন লীড জেনারেট করছে যারা সামনের দিনগুলোতে এই প্লাটফর্মে ফিরে ফিরে আসবে এবং পারচেইজ করবে।

Entrepreneur রিসেন্টলি একটি সার্ভে চালিয়ে দেখেছে MAGIC 30% Discount কাস্টোমারদের সবচেয়ে বেশি আকৃষ্ট করছে এই মূহুর্তে।

আমি নিজে ইকমার্স ইন্ডাস্ট্রিতে কিছুটা জড়িত এবং angel investor হবার সুবাদে দেখেছি শুধুমাত্র Chaldal এর মতো গ্রোসারী নয়, বেশ কিছু ফ্যাশন বেইজড ইকমার্সও FREE Delivery এবং ডিসকাউন্ট দিয়ে আশাতিরিক্ত রেসপন্স পেয়েছে এর মাঝে।

সুতরাং আপনার বিজনেস যে ইন্ডাস্ট্রিতেই হোক না কেন, এনালাইসিস করে দেখুন কিভাবে আপনার প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিস এর most attractive পার্টটা ফ্রি কিংবা ডিসকাউন্টে দেয়া যায়।

প্রথমত এর ফলে আপনি instantly অতি প্রয়োজনীয় কিছু cash জেনারেট করবেন যা আপনাকে কিছুটা ব্রিদিং স্পেস এবং রানওয়ে দেবে।

দ্বিতীয়ত, এর ফলে ক্রিয়েট হওয়া নতুন কাস্টোমারদেরকে আপনি ভবিষ্যতে profitably রিটার্গেট করতে পারবেন অন্যান্য অফার দিয়ে।

২। Strategic Collaboration

করোনাভাইরাস-ক্রাইসিস এর একটা অত্যন্ত নেগেটিভ ব্যপার হচ্ছে আমরা এর জন্য একদমই প্রিপেয়ার ছিলাম না। যদিও আমরা খুব দ্রুত ওয়ার্ক ফ্রম হোম ইত্যাদি এডাপ্ট করে নেবার চেষ্টা করছি যতটা সম্ভব, অন্যান্য অনেক জায়গাতেই আমাদের দূর্বলতা পুষিয়ে নেবার কোন সুযোগ আমরা পাই নি।

আর এই দূঃসময়ে আপনার বিজনেসের খুব ইফেক্টিভ একটা বিজনেস স্ট্রাটেজি হতে পারে - Strategic Collaboration or Partnership.

প্রতিটা বিজনেস এরই কিছু স্ট্রেন্থ কিছু উইকনেস থাকে। সাধারণত যেটা আপনার বিজনেসের core competency, সেখানে আপনি অত্যন্তু স্ট্রং।

এখন এমন একটা সময়, যখন আপনার বিজনেসকে কিছুটা pivot না করলে সারভাইব করানো খুবই টাফ হতে পারে (পরবর্তী পয়েন্টে আমি pivot নিয়ে বিস্তারিত লিখবো)। কিন্তু pivot করতে গিয়ে দেখা যাবে যে ক্যাপাসিটি দরকার সেটি আপনার নেই।

ফর এক্সাম্পল, আপনি একটি মার্কেটিং এজেন্সি রান করছেন, কিন্তু এই ক্রাইসিসে মার্কেটিং এবং Ad বাজেট কমে যাওয়াইয় আপনি ক্লায়েন্ট পাচ্ছেন না। আপনি চিন্তা করলেন কিছুটা Pivot করে একটি অনলাইন এডুকেশন প্লাটফরম চালু করবেন যেহেতু এর চাহিদা বাড়ছে।

আপনার বেশ কিছু ক্রিয়েটিভ এমপ্লয়ী রয়েছে যারা কোয়ালিটি কোর্স এবং কন্টেন্ট তৈরি করতে পারবে। কিন্তু প্রব্লেম হলো আপনার টেকনোলজিকাল রিসোর্স নেই যারা আপনাকে ওয়েবসাইট তৈরি করে দেবে, কিংবা আপনার এমপ্লয়ীদের কোর্স তৈরি করা বা পাবলিক স্পিকিং এর মতো এক্সপেরিয়েন্স নেই।

সুতরাং আপনি এই মূহুর্তে যেটা করতে পারেন সেটা হচ্ছে কোন টেক কোম্পানি, কিংবা স্টাবলিশড eLearning প্লাটফরমের সাথে collaboration করতে। সেই সাথে কোন Consultant বা Coach এর সাথে পার্টনারশিপ করতে পারেন স্টাফদেরকে ট্রেইনাপ করাতে।

বাংলাদেশে আমরা অলরেডি দেখেছি Sheba.xyz, Daily Star এবং সমকাল যৌথভাবে কাজ করছে Mission Save Bangladesh নিয়ে। বিদ্যানন্দ, ইকুরিয়ার এর মতো ডেলিভারি কোম্পানির সাহায্য নিচ্ছে।

গ্লোবালি Facebook এবং Microsoft অলরেডি WHO এর সাথে পার্টনারশিপ করেছে Hackathon করার জন্য। eMarketer এবং Business Insider জয়েন্ট ফোর্স করেছে রিসার্চ করার জন্য।

এছাড়াও রিসেন্টলি Facebook ইন্ডিয়াতে মুকেশ আম্বানীর ইন্টারনেট জায়ান্ট Jio এর সাথে 5.7 Billion ডলার ডীল করেছে!

সুতরাং আপনাকে এই মূহুর্তে Identify করতে হবে আপনার বিজনেস সার্ভাইভ করানোর জন্য বা রেভিনিউ জেনারেট করার জন্য কি প্রয়োজন, এবং কাদের সাথে পার্টনারশিপের মাধ্যমে আপনার মিউচিয়ালি বেনিফিটেড হবেন।

এখানে একটা সতর্কবানী -

Don’t make partnership for the sake of partnership. Make sure it is strategically right for both parties to grow your business at this crisis period.


৩। Customer Retention With MarTech & Digital Marketing

ফোর্বস এর তথ্য অনুযায়ী, একজন নতুন কাস্টোমার তৈরী করার acquisition cost একজন existing customer retention cost এর চেয়ে ৫ গুণ বেশি হতে পারে। Bain & Company (one of the big three consultancy firms) এর একটা রিসার্চ ফাইন্ডিংস ছিল যে কাস্টোমার রিটেনশন ৫% বাড়াতে পারলে প্রফিট ২৫ থেকে ৯৫ পারসেন্ট পর্যন্ত বাড়তে পারে।

লকডাউন শুরু হবার পর থেকে কাস্টোমার কেনা কমিয়ে দিয়েছে, ফলে বিজনেসগুলোর হাতেও মার্কেটিং এর জন্য যথেষ্ট ফান্ড নেই। আর তাছাড়া আমি-আপনি নিজেও কিন্তু এখন অপিরিচিত বা স্বল্পপরিচিত কারো কাছ থেকে কিছু কিনতে চাইবো না। কিছু লাগলে চেষ্টা করবো সেখান থেকেই কিনতে বা সার্ভিস নিতে যেখানে আমার প্রিভিয়াস এক্সপেরিয়েন্স ভাল।

So the best shot with your limited marketing budget is to Laser Focus Target your existing, regular and loyal customers.

এবং এই খরার মৌসুমে কম খরচে ম্যাক্সিমাম আউটপুট আনতে Digital Marketing এবং MarTech (Marketing Technologies) এর দিকে আপনাকে বেশি করে ঝুকতে হবে। অযথা কস্টলি নতুন প্রসপেক্ট এর পিছনে না ছুটে যেহেতু কাস্টোমারদের ইনফো আপনার কাছে আছে, প্রোপার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস আইডেন্টিফাই করে তাদের কাছে পৌছাতে হবে। প্রয়োজনে নতুন মার্কেটিং চ্যানেল মিক্স ব্যবহার করে একটা integrated marketing communication করতে হবে।

“করোনাভাইরাসঃ বদলে দিতে যাচ্ছে পুরো মার্কেটিং এর জগত - আপনি কি প্রস্তুত?” শিরোনামে এর আগের একটি লেখাতে আমি পাঁচটি মার্কেটিং এরিয়া পয়েন্ট আউট করেছিলাম, চাইলে সেটি দেখে নিতে পারেন।

৪। Pivot Your Business

করোনার অর্থনৈতিক আঘাতে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ ইন্ডাস্ট্রিগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে রাইড শেয়ারিং। আমাদের লোকাল স্টার্টআপ Pathao তাদের মেইন রেভিনিউ স্ট্রীম রাইড শেয়ারিং বন্ধ থাকার কিছুদিনের মধ্যেই বন্ধপ্রায় সার্ভিস Pathao Tong কে আবার পুনরূজ্জীবিত করেছে এবং চেইন সুপার শপ ‘স্বপ্ন’ এর সাথে পার্টনারশীপে গ্রোসারী আইটেমস ডেলিভারি করছে।

কিন্তু তাই বলে এখন সব কোম্পানি একসাথে গ্রোসারী ডেলিভারী বিজনেস মডেল করতে চাইলে সেটা কিন্তু মোটেই ফলপ্রসু হবে না। আপনাকে অবশ্যই আপনার কোম্পানীর strength এবং competitive advantage অনুযায়ী pivot করার প্ল্যান করতে হবে। আপনাকে যথেষ্ট innovative হতে হবে, করোনাকালীন এবং post-corona world এর কোন একটা স্পেসিফিক এবং ইউনিক প্রব্লেম আইডেনটিফাই করে সলভ করার চেষ্টা করতে হবে।

উদাহরণস্বরুপ আমেরিকাতে Uber তাদের ড্রাইভার দের জন্য নতুন একটা ফিচার Work Hub ইন্ট্রোডিউস করেছে, যার মাধ্যমে ড্রাইভাররা তাদের অন্যান্য প্লাটফরম যেমন Uber Eats, Uber Works ইত্যাদির মাধ্যমে ভিন্ন কোন সার্ভিস (ডেলিভারি, সেলসম্যান ইত্যাদি) প্রোভাইড করতে পারবে।

সুতরাং আপনাকেও এই মূহুর্তে আপনার বিজনেসের কোর মডেল এর কাছাকাছি কোন একটা Pivot ফিগার আউট করতে হবে, প্রয়োজনে অন্য কারো সাথে strategic collaboration (পয়েন্ট টু তে ডিসকাস করেছি) করে হলেও।

আমার অন্যতম পছন্দের বই Lean Startup’ এর লেখক Eric Ries দশ ধরণের pivot এর কথা বলেছেন, সেগুলো ট্রাই করতে পারেন, এবং সময় পেলে আমি পরবর্তীতে আরও ডিটেইলস লিখব Pivoting গাইডলাইন দিয়ে।

আমার prediction, আগামী দুই বছরে এই ক্রাইসিস রিলেটেড প্রব্লেম এড্রেস করেই বিশ্বে অন্তত পাঁচটি Unicorn Startup জন্ম নেবে। এবং পরবর্তী বিশ বছর তারা রাজত্ব করবে সেই Breakthrough প্রোডাক্ট বা সার্ভিস এর মাধ্যমে যা আমরা এর আগে চিন্তা করি নি।

Ecommerce জায়ান্ট Amazon, একবিংশ শতাব্দীর শুরুতে Dotcom bubble এর মাঝে এভাবেই জন্ম নিয়েছিল। আর ঠিক একইভাবে বিগত অর্থনৈতিক মন্দার (২০০৮) সময় ইনোভেশন আনার মাধ্যমে জন্ম নিয়েছিল Uber, Instagram, Dropbox, Whatsapp, Slack, Airbnb এর মতো কোম্পানি গুলো।

যদিও এই প্রচন্ড ঝড়ে অসংখ্য অসংখ্য ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্থ এবং বন্ধ হয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে, এবং বিজনেস মডেল চেইঞ্জ করার জন্য আগে টিকে থাকাটাও জরুরী। এ ব্যাপারে কিছু সাজেশন আমি দিয়েছিলাম স্টার্টাপ ফোকাসড অনলাইন মিডিয়া Future Startup এ “Surviving Coronavirus: A Guide For Startup” আর্টিকেলে।

৫। Become a Story Brand

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্দের শেষের দিকে, যখন সবাই আশা করছিল একটা বড় ধরণের অর্থনৈতিক মন্দার, ঠিক তখনই আমেরিকাতে অটোমোবাইল কোম্পানিগুলো নতুন করে তাদের advertising effort বাড়াতে শুরু করেছিল। একইভাবে রিয়েল এস্টেট কোম্পানিগুলাও তাদের ভবিষ্যত কাস্টোমারদেরকে নতুন বাড়ির স্বপ্ন দেখাতে শুরু করলো। এবং আশ্চর্যজনক ভাবে, যুদ্ধের ঠিক পরপর খুব দ্রুতই ইকোনমি ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করলো!

And guess which companies became most successful??

রাইট, সেই কোম্পানিগুলোই...যারা যুদ্ধকালীন তাদের মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়েছিল, আশার গল্প শুনিয়েছিল, এবং এভাবে করে কাস্টোমারদের Top of mind এ ছিল।

গত একশো বছরের ইতিহাসে, 1918 সালের spahish flu মহামারী থেকে শুরু করে ২০০৮ এর recession পর্যন্ত যত বিপর্যয় এসেছে, এবং তার মধ্যেও যেই বিজনেসগুলো সারভাইব করেছে তাদের মধ্যে একটা জিনিস কিন্তু কমন - তারা প্রতিনিয়ত কাস্টোমারদের সাথে engage থেকেছে, inspire করেছে, কাস্টোমারকে তাদের গল্পের হিরো বানিয়েছে, এবং আশার আলো দেখার প্লাটফরম তৈরি করেছে।

Mckinsey, আরেকটি Big Three কন্সালটেন্সি ফার্ম, এই করোনা-ক্রাইসিসে ব্রান্ডগুলোকে এই বিষয়গুলোতে ফোকাস করতে বলেছে - নতুন আঙ্গিকে কাস্টোমার এক্সপেরিয়েন্স সাজানো, কাস্টোমারের সাথে মিনিংফুল একটা রিলেশনশীপ তৈরি, কমিউনিটির কল্যাণ এর জন্য কাজ করা ইত্যাদি। এবং এই সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং এর মূহুর্তে এজন্য অবশ্যই আপনাকে Digital Marketing এবং MarTech এর পূর্ণ সদ্ব্যবহার করতে হবে।

আমরা বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্র্যান্ড Grameenphone কে দেখেছি এই ক্রাইসিসের শুরু থেকেই সচেতনতামূলক এবং সময়োপোযোগী মার্কেটিং করতে, ECAB এর আহবানে Evaly সহ আরো অনেক ইকমার্স এগিয়ে আসছে ‘মানবসেবা’ তে, ছোট বড় আরো অসংখ্য কোম্পানি তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খাবার বিতরণ থেকে শুরু করে হসপিটাল সেবা দিচ্ছে, Daily Star এবং প্রথম আলো এর মতো অন্যান্য নিউজ মিডিয়া নিজেদের চরম অর্থনৈতিক মন্দার মাঝেও মানুষের কাছে আশার বানী নিয়ে যাচ্ছে প্রতিদিন।

ডিয়ার Brand Practitioners, আমাদের মনে রাখতে হবে যেসব কোম্পানি এখন তাদের কাস্টোমার এবং এমপ্লয়ীদের যত্ন নেবে, উপযুক্ত কন্টেন্ট এবং ভ্যালু প্রোভাইড করবে সেই লয়্যাল কাস্টোমার এবং এমপ্লয়ীরাই একসময় হাজার গুণ রিটার্ন এনে দেবে।

You're Just One Idea Away!

একদিন এই ঝড় শান্ত হবে - আবার আমরা একসাথে হাঁটবো পিচঢালা রাস্তায় প্রচন্ড রোদ্দুরে কিংবা গা ভেজাবো পরম শান্তির বৃষ্টির জলে। এর মাঝে হয়তো অনেক কিছুই চিরতরে বদলে যাবে - কিন্তু এরমাঝেও আমরা যুদ্ধ করে যাব এই করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে জীবন এবং জীবিকার জন্য।

আমি আন্তরিক ভাবে আশা করি বাংলাদেশে হয়তো আপনার হাত ধরেই পরবর্তী innovation এবং breakthrough টি আসবে যার ফলে কোটি কোটি মানুষ উপকৃ্ত হবে। সেই সাথে বিশ্বাস করি আলোচিত পাঁচটি স্ট্রাটেজি আপনাকে এই ক্রাইসিস মোমেন্টে সামনে এগিয়ে চলার জন্য কিছু রসদ যোগাবে।

আপনার মহামূল্যবান মন্তব্য এবং পরবর্তীতে কি নিয়ে আলোচনা করতে পারি কাইন্ডলি কমেন্টে জানাবেন। Stay Safe.

​get yOUR 

FREE plan now!

Mark Anupom Mollick

Founder & Executive Consultant, 

Idean Consulting

Anupom is an experienced Software Engineer and Business Consultant for tech companies. Currently, he is also a Doctor of Business Administration (DBA) Candidate in IBA (DU). During leisure, he loves to read from his 500+ books elibrary or watch Netflix while enjoying a bar of chocolate!

Feel free to reach Anupom at anupom.mollick@ideanconsulting.com or contact via LinkedIn.

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked

  1. You explained it in a lively and straightforward way. Feeling very good, I learned a lot of new things, which I needed to learn.

{"email":"Email address invalid","url":"Website address invalid","required":"Required field missing"}

Subscribe now to get the latest updates!